যৌনসুখ বাড়াতে ভায়াগ্রার ব্যবহার অত্যন্ত ঝুঁকিপূর্ণ – সতর্ক হন !

যৌনসুখ বাড়াতে ভায়াগ্রার ব্যবহার অত্যন্ত ঝুঁকিপূর্ণ – সতর্ক হন !

0
SHARE
ভায়াগ্রার

প্রথমেই জেনে রাখা ভালো, ভায়াগ্রা একটি ট্রেড নেম বা নির্দিষ্ট একটি ওষুধের রাসায়নিক নামকরণ। এর মূল উপাদান সিলডেনাফিল সাইট্রেট। প্রাথমিক পর্যায়ে এটি হৃদযন্ত্রের সমস্যায় ব্যবহার করা হলেও তাতে আশাপ্রদ ফল পাওয়া যায়নি। কিন্তু গবেষণা চলাকালীন দেখা যায়, পুরুষ রোগীদের লিঙ্গ উত্থানের ক্ষেত্রে তা কার্যকর হচ্ছে। কিন্তু যৌনসুখ বাড়াতে ভায়াগ্রা ব্যবহার করা হলেও এটি অত্যন্ত ঝুঁকিপূর্ণ।

মূলত অনিচ্ছুক মসৃণ কোষের শিথিলতার সময়সীমা বৃদ্ধি করে এবং পুরুষাঙ্গে রক্ত চলাচলের হার বাড়ানোই ভায়াগ্রার কাজ। তবে শুধুমাত্র পুরুষাঙ্গই নয়, গোটা শ্রোণী এলাকাতেই রক্ত সরবরাহ বাড়ায় ভায়াগ্রা। এর ফলে পুরুষ্যত্বহীন রোগী যৌন উত্তেজনা অনুভব করেন এবং তাদের পুরুষাঙ্গ উত্থিত হয়। পুরুষদের পাশাপাশি অনেক মহিলাও ভায়াগ্রা সেবন করেন। এতে তাদের কাইটরিসে রক্ত সঞ্চালন ঘটে এবং তারা বিপুল উত্তেজনা অনুভব করেন। পরীক্ষায় দেখা গিয়েছে, শতকরা ৮৮ ভাগ ক্ষেত্রে যৌনতায় অক্ষম পুরুষ ভায়াগ্রা ব্যবহার করে ফল পেয়েছেন। শুধু লিঙ্গ উত্থানের সমস্যাই নয়, এই অবস্থা ধরে রাখতেও ভায়াগ্রার ভূমিকা প্রশ্নাতীত। এর প্রয়োগে যৌন সুখের সময়সীমা বৃদ্ধি হয় বলেও প্রমাণিত।

আরও জানুন…..

ভায়াগ্রার ব্যবহার অত্যন্ত ঝুঁকিপূর্ণ :- ভায়াগ্রা ব্যবহারের আগে কয়েকটি ব্যাপারে নিশ্চিত হয়ে নেওয়া জরুরি। চিকিত্‍সকদের মতে, হৃদযন্ত্রের সমস্যা থাকলে এই ওষুধ প্রয়োগ করা অত্যন্ত ঝুঁকিপূর্ণ। এই কারণে ভায়াগ্রা ব্যবহারের আগে দেখে নিতে হবে রোগীর কোন হৃদযন্ত্র জনিত সমস্যা রয়েছে কিনা। সাধারণত, হার্ট ফেইলিয়র, স্ট্রোক বা মস্তিষ্কে রক্তক্ষরণ, হার্টের মায়োকার্ডিয়ামে সংক্রমণ, অত্যধিক বা অত্যন্ত কম রক্তচাপের সমস্যা থাকলে চিকিত্‍সক এই ওষুধ ব্যবহার করতে নিষেধ করেন। এ ছাড়া জিভের নীচে রাখার গ্লিসারিন টাইনাইট্রেটস ট্যাবলেট, স্প্রে, ডাইনাইট্রেটস ইত্যাদি ওষুধের সঙ্গেও ভায়াগ্রা ব্যবহারের ক্ষেত্রে নিষেধাজ্ঞা জারি করেন চিকিত্‍সকরা। বাজারে প্রচলিত অর্গ্যানিক নাইট্রেটস যেমন নাইট্রোগ্লিসারিন, আইসোসরবাইটডাইনাইট্রেটস, নাইটোডুর, নাইটোপেস্ট এবং আইসোবিউটাল নাইট্রেট সমৃদ্ধ ওষুধ নিয়মিত ব্যবহার করলেও ভায়াগ্রা সেবন করা মানা।

ভায়াগ্রার পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া নিয়ে মতান্তর রয়েছে। তবে প্রচলিত পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ার মধ্যে মাথাব্যথা, মুখমণ্ডল রক্তবর্ণ ধারণ করা এবং দৃষ্টি জনিত সমস্যা দেখা দিতে পারে বলে জানা গিয়েছে। বেশি মাত্রায় ভায়াগ্রা ব্যবহারে চোখের নানা সমস্যা দেখা দেওয়া বিরল নয়।

যৌন সমস্যার হোমিওপ্যাথি চিকিত্সা :- যেকোন যৌন সমস্যার মূলে রয়েছে অবশ্যই একটি কারণ। এই কারণটি নির্ণয় করে যথাযথ চিকিত্সার মাধ্যমে যৌন সমস্যাটি চিরতরে নির্মূল করাই হলো বুদ্ধিমানের কাজ। আর পুরুষ এবং মহিলাদের যেকোনো যৌন সমস্যা চিরতরে নির্মূলের ক্ষেত্রে হোমিওপ্যাথি চিকিত্সা বিজ্ঞানের গুরুত্ব অপরিসীম। কারণ সৃষ্টিলগ্ন থেকে নানা প্রকার যৌন রোগসমূহকে চিরতরে নির্মূলের ক্ষেত্রে হোমিওপ্যাথি ছাড়া আর কোনো চিকিত্সা বিজ্ঞানই তেমন কোনো সুবিধা করে উঠতে পারে নি। কারণ অন্যান্য চিকিত্সা পদ্ধতিতে ঔষধের রয়েছে মারাত্মক সব পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া যা হোমিওপ্যাথিতে নেই বললেই চলে। যৌন দুর্বলতায় ভায়াগ্রার মত ক্ষতিকর ঔষধ তো দুরের কথা অন্য যে কোনো প্রকার উত্তেজক ঔষধ খাওয়া থেকে সম্পূর্ণ বিরত থাকুন। আর যেকোন প্রকার যৌন সমস্যায় সর্বাধিক কার্যকর হোমিওপ্যাথি চিকিত্সা গ্রহণ করে চিরদিনের জন্য ঐ সমস্যা থেকে মুক্ত হন। ধন্যবাদ।

More Incoming Search Quarrier:
ভায়াগ্রার দাম কত,, ভায়াগ্রার, ভায়াগ্রার দাম, ভায়াগ্রার উপকারিতা, ভায়াগ্রার কি, ভায়াগ্রার কাজ, ভায়াগ্রার কার্যকারিতা, ভায়াগ্রার ব্যবহার, ভায়াগ্রার বিকল্প, ভায়াগ্রার কাজ করবে তরমুজ, ভায়াগ্রার ক্ষতিকর, ভায়াগ্রা ওষুধ,

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY