প্রথম ছ্যাকা খাওয়ার পর মেয়েরা কি কি করে..

প্রথম ছ্যাকা খাওয়ার পর মেয়েরা কি কি করে..

প্রথম

0
SHARE
প্রথম

 প্রথম ছ্যাকা খাওয়ার পর

জীবনের সবচেয়ে সুন্দর অভিজ্ঞতা। তার সঙ্গে কি কোনও কিছুর তুলনা চলে? তবে সত্যি বলতে কি, প্রথম প্রেম মোটেও আহামরি কিছু নয়। বরং বলা যায় সবচেয়ে গুরুত্বহীন। একটা বয়সে আমরা সকলেই প্রেমে পড়তে উদগ্রীব থাকি আর তখনই হুটহাট প্রেমটা ‘হয়ে যায়’। এবং সত্যি বলতে কি, পৃথিবীর বেশিরভাগ মানুষের প্রথম প্রেমটা কিন্তু সফল হয় না আর সেটা খুবই স্বাভাবিক। বরং প্রথম প্রেমটা হয় বেশিরভাগ মানুষের জন্যই একটা বিশেষ শিক্ষা।

প্রথম ছ্যাকা খাওয়ার পর মেয়েরা যা যা করে:

১)  প্রেমেই শারীরিকভাবে বেশি ঘনিষ্ঠ হতে নেই: প্রথম প্রেমের ভুল থেকে মেয়েরা সকলের আগে এটাই শেখে।  প্রেম যেহেতু প্রথম ছ্যাকা হবার সম্ভাবনাই বেশি থাকে, তাই শারীরিকভাবে ঘনিষ্ঠ হওয়া হচ্ছে এক্ষেত্রে সবচেয়ে বড় ভুল যার জন্য আজীবন পস্তাতে হতে পারে।

২) বিয়ে করতে হয় তাঁকেই, যে সন্তান ভালোবাসে: যে পুরুষ সন্তান ভালোবাসে না, তাঁর সঙ্গে প্রেম করেও লাভ নেই। কেননা সেই প্রেম কখনও বিয়ের দিকে যাবে না। সন্তান ভালোবাসেন না যে পুরুষেরা, তাঁরা বিয়েতেও আগ্রহী হন না সাধারণত।

৩) দেখতে সুন্দর হলেই ‘ভালো’ মানুষ হয় না: প্রথম প্রেমে মানুষের চেহারা বা বাহ্যিক সৌন্দর্যটাই সবচেয়ে বড় ভূমিকা পালন করে থাকে। একটি ছেলে কেবল দেখতে সুন্দর, পেশীবহুল বা ওয়েল ড্রেসড- এটুকুর মানেই যে সে ভালো ও যোগ্য মানুষ, এই ধারণাটা মেয়েদের প্রথম প্রেমের পরেই ভাঙে।

প্রথম ছ্যাকা খাওয়ার পর

৪) পুরুষের সবচেয়ে বড় সৌন্দর্য তাঁর ব্যক্তিত্ব ও বুদ্ধিমত্তা: একজন বুদ্ধিমান মানুষ মাত্রই তাঁর নিজস্ব একটি ব্যক্তিত্ব থাকবে। আর ব্যক্তিত্ববান ও রুচিশীল পুরুষ হচ্ছেন আদর্শ প্রেমিক ও স্বামী।

৫) আসলে আমি কেমন প্রেমিক চান: প্রথম প্রেমটা মানুষের ভুলই হয়ে থাকে। আর এই ভুলটা করেই মেয়েরা বুঝতে পারে যে আসলে কেমন স্বামী বা প্রেমিক চাই তাঁর।

৬) অশিক্ষিত পুরুষদের থেকে দূরে থাকাই শ্রেয়: যে পুরুষ বই পড়ে না বা যাঁর পড়াশোনা নিয়ে আগ্রহ নেই- এমন পুরুষ যে প্রেমিক বা স্বামী হিসাবে মোটেও সুখকর নন, সেটা বুদ্ধিমতী মেয়েরা প্রথম প্রেমের পরেই বুঝে নেয়।

৭) বিয়ে তাঁকেই করতে হবে, যিনি আজীবনের সঙ্গিনী চান: বিয়ে কোনও ছেলেখেলা নয়। প্রেম-প্রেম খেলে বেড়ানো ছেলেরা মূলত চরিত্রহীন হয়। যিনি আসলেই বিয়ে করে সংসার পাততে চান, এমন মানসিকতার পুরুষের সঙ্গেই প্রেম করা উচিত।

৮) মন তাঁকেই দিতে হবে, যে মনকে যতেœ রাখবে: যাকে তাঁকে মন দিলে কি হবে? মন কি এতই সস্তা?

৯) কীভাবে ঝগড়া করতে হবে: আর কিছু হোক বা না হোক, কীভাবে ঝগড়ার সময় কৌশলী হতে হবে সেটা প্রথম প্রেমে মেয়েরা ভালোই শিখে ফেলে।

১০) ভালো তাঁকেই বাসা উচিত, যিনি ভালবাসতে জানেন: ভালোবাসা একটি সম্পূর্ণ দু’তরফা ব্যাপার। এটা তখনই সুন্দর যখন দু’জন মানুষ পরস্পরকে সমান ভালোবাসেন। এক তরফা ভালোবাসা কষ্ট ছাড়া কিছুই দেয় না।

আরও  জান্তেপারবেন: নারীর কিছু গোপন ইচ্ছার কথা যা কাউকে জানতে দেন না…

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY